একটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছেন রিটার্নিং অফিসার। কেন্দ্রটি হচ্ছে ইকবালনগর সরকারি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্র (২০২)।

কতিপয় ব্যক্তি জোর করে কেন্দ্রে প্রবেশ করে সিল মারা ও তা ব্যালট বাক্সে প্রবেশ করানোয় বেলা ১২টার দিকে রিটার্নিং অফিসার সেখানে এসে ভোটগ্রহণ স্থগিতের ঘোষণা দেন।

কেন্দ্রে দায়িত্বপালনকারী অনেকে বলেন, সকাল ১১টার দিকে ওই কেন্দ্রে ২০-২৫ জন যুবক জোর করে প্রবেশ করে। তারা কেন্দ্রের ৭ নম্বর বুথে ঢুকে ব্যালট পেপার নিয়ে সিল মেরে ভোটবাক্সে দিতে থাকে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার খলিলুর রহমান কেন্দ্রে ভোট স্থগিতের ঘোষণা দেন।

একাধিক এজেন্ট বলেন, যেসব যুবক ওই কেন্দ্রে আসে তাদের সবার গায়ে নৌকা প্রতীকের ব্যাজ লাগানো ছিল। তারা এসেই প্রার্থীদের এজেন্টদের বের হয়ে যেতে বলে। এরপর ব্যালট পেপার নিয়ে নৌকা প্রতীক এবং আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীর ঠেলাগাড়ি ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে গ্লাস প্রতীকে ভোট দিয়ে তা বাক্সে ভরে দেন।

প্রিসাইডিং অফিসার খলিলুর রহমান বলেন, তিনি পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করেছে কিনা- তিনি তা জানেন না। বেলা ১২টার দিকে ওই কেন্দ্রে আসেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুচ আলী। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এই কেন্দ্রে  ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। সব ব্যালট পেপার জব্দ করা হয়েছে।

এদিকে, নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের ফাতেমা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রেও ভোটগ্রহণ সাময়িক স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে সেখানে আবারো ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করেন প্রিসাইডিং অফিসার জিয়াউল হক।

image_printপ্রিন্ট

শেয়ার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।