নেপালের রাষ্ট্রদূত প্রফেসর ডা. চোপলাল ভুসালসহ ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল পঞ্চগড়ে

বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ও মংলা সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে বহির্বিশ্ব থেকে নেপালে পণ্য আমদানি করার সম্ভাব্যতা যাচাই করতে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ও পঞ্চগড় রেলস্টেশন পরিদর্শন করেছে বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপালের রাষ্ট্রদূত প্রফেসর ডা. চোপলাল ভুসালসহ ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল।

আজ রবিবার দুপুরে প্রতিনিধি দলটি এ বিষয়ে পঞ্চগড়ের ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করে। পঞ্চগড় জেলা পরিষদ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রতিনিধি দল জানায়, নেপাল বহির্বিশ্ব থেকে পণ্য আমদানি করতে ভারতের কলকাতাসহ দুটি সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করে। কিন্তু ওই দুটি বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানিতে বেশির খরচের পাশাপাশি অনেক বেশি সময় লাগে। এ জন্য তারা বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ও মংলা সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে বহির্বিশ্ব থেকে পণ্য আমদানির কথা চিন্তা করছেন। এতে সড়ক পথে খরচ সাশ্রয়ের পাশাপাশি ভারতের সমুদ্র বন্দরের চেয়ে অনেক কম সময়েই পণ্য আমদানি করা সম্ভব বলে মনে করেন তারা। এই সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্যই প্রতিনিধি দল বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পরিদর্শন ও পঞ্চগড় রেল স্টেশন পরিদর্শন করে পঞ্চগড় চেম্বারের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করে।

তারা আরো জানান, ১৯৭৬ সালের নেপাল ও বাংলাদেশ পরস্পরের মাঝে বাণিজ্য, ট্রানজিট ও বেসামরিক বিমান চলাচল উন্নয়নের জন্য একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি করে। এই চুক্তির আলোকেই চট্টগ্রাম ও মংলা সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করে সড়ক পথে বাংলাবান্ধা হয়ে নেপালে পণ্য আমদানি ও রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে দেশটি। এ সময় পঞ্চগড়ের ব্যবসায়ী নেতারা পঞ্চগড়ের রেলপথকে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত সম্প্রসারণের জন্য নেপালের সহযোগিতা কামনা করেন।

সড়ক পথে নেপালের এই ব্যবসায়িক যোগাযোগের মাধ্যমে দুই দেশের বাণিজ্য সম্প্রসারণের পাশাপাশি দুই দেশের সম্পর্ক আরো জোড়দার হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ নেপালি দূতাবাসের ডেপুটি চিফ মিশন ধন বহাদুর ওলি, বাংলাবান্ধা কাস্টমসের সহকারী কমিশনার আব্দুস সাত্তার, পঞ্চগড় চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আব্দুল হান্নান শেখ, ঠাকুরগাঁও চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি হাবিবুল ইসলাম বাবলু, আমদানি রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদি হাসান খান বাবলা, সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রেজাউল করিম রেজা, নেপালের বীরগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি অশোক কুমার আগারওয়াল ।

image_printপ্রিন্ট

শেয়ার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।