পা হারালেন ঈদযাত্রী সোহেল ট্রেনে কাটা পড়ে

ঈদ উপলক্ষে ঘরে ফিরতে যেন বেশিই তাড়া পেয়ে বসেছিল সোহেল রানার। রাজধানীর বিমানবন্দর স্টেশনে অপেক্ষায় ছিলেন তিনি। ট্রেন আসা মাত্র দৌড়ে যান। উঠতে গিয়ে পা ফসকে নিচে পড়ে যান তিনি। চলন্ত ট্রেনে কাটা পড়ে পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বিমানবন্দর স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে উত্তরা ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা দ্রুত তাকে উদ্ধার করে সিএমএইচ ভর্তি করেন। পা হারানো সোহেল রানার গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জের দক্ষিণ শ্রীপুর খুশুর পাড়ার খিদিরে। বাবার নাম আব্দুল বাকি সরকার। সোহেল আরএফএল কোম্পানিতে চাকরি করেন বলে জানা গেছে।

উত্তরা ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. সফিকুল ইসলাম জানান, ঈদের সময়ে যাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতের জন্য উত্তরা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স হতে বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনে একটি টিম ডিউটিতে রাখা হয়। বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে সংবাদ আসে ঢাকা থেকে ছাড়া রাজশাহী এক্সপ্রেস হতে বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের প্লাটফর্মের পাশে একটি লোক ট্রেনে কাটা পড়েছে। ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পায় লোকটির ডান পা বিচ্ছিন্ন হয়ে রেল লাইনের পাশে পড়ে আছে। তিনি আরও বলেন, ঢাকা থেকে গাইবান্ধা ঈদ করতে যাওয়ার সময় বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতের স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।

image_printপ্রিন্ট

শেয়ার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।